আক্কেলপুরে রেলওয়ের জায়গার গাছ কেটে নিলেন চেয়ারম্যান পুত্র

নিয়াজ মোরশেদ, আক্কেলপুর(জয়পুরহাট): জয়পুরহাটের আক্কেলপুর জাফপুর রেল ষ্টেশন এলাকায় রেল লাইনের দু’ধার থেকে ৩২ টি কাঠাল গাছ কেটে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল রোববার গাছ গুলো কাটা হয়। স্থানীয় সোনামুখী ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলে তারেক হোসেন গাছ গুলো কাটেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে,উপজেলার সোনামুখী ইউনিয়নে জাফরপুর রেল ষ্টেশন অবস্থিত। ষ্টেশন থেকে একশত গজ উত্তর দিকে রেল লাইনের ধার থেকে কয়েক জন শ্রমিক লাগিয়ে ৩২ টি কাঠাল গাছ কেটে ফেলা হয়। চেয়ারম্যানের পুত্র তারেক হোসেন শ্রমিক লাগিয়ে গাছ গুলো কাটেন। তিনি গাছ গুলো স্থানীয় ছ’মিল মালিকের কাছে বিক্রি করেন। এসব গাছের মুল্য প্রায় দু’লক্ষ টাকা হবে বলে স্থানীয় কয়েক জনব্যাক্তি জানিয়েছেন।

গাছ কাটার কথা স্বীকার করে তারেক হোসেন বলেন,আমি গাছ গুলো রোপন করে ছিলাম।রেলের সিনিয়র প্রকৌশলী আব্দুস সালাম আমাকে গাছ গুলো কাটার নির্দেশ দিয়েছিলেন।এজন্য শ্রমিক লাগিয়ে গাছ গুলো আমি কেটে নিয়েছি।

সান্তাহর থেকে পারবর্তীপুর এলাকা দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত রেলের সিনিয়র প্রকৌশলীআব্দুস ছালাম বলেন, আমি গাছ কাটার নির্দেশনা দেয়নি। শুধু গাছের ডালপালা কেটে ফেলার কথা বলেছিলাম।

সোনামুখী ইউপি চেয়াপরম্যান ডি.এম রাহেল ইমাম বলেন, আমার ছেলে তারেক হোসেন রেলের জায়গায় গাছ গুলো রোপন করেছিল। রেল কর্মকর্তার নির্দেশেই গাছ গুলো কেটেছে।

আক্কেলপুর বন বিভাগের কর্মকর্তা শাজাহাল আলী বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে বলেন, জনসাধারণ সরকারী জায়গায় গাছ লাগাতে পারে।রক্ষণা বেক্ষন করতে পারে ও ফল ফলাদি খেতে পারে কিন্তু গাছ কাটার অধিকার কারো নেই।