আপন জুয়েলার্সে অভিযান : ৩০০ কেজি গহনা জব্দ

স্টাফ রিপোর্টার : ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত সাফাত আহমেদের বাবার প্রতিষ্ঠান আপন জুয়েলার্সে অভিযান চালিয়ে প্রায় ৩০০ কেজি সোনা ও ডায়মন্ডের (হীরা) গহনা জব্দ করেছে শুল্ক গোয়েন্দা কর্তৃপক্ষ।

‘ডার্টি মানি’র অনুসন্ধানে রাজধানীতে প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন শাখায় তল্লাশি চালিয়ে প্রায় ৮৫ কোটি ৩৮ লাখ টাকা মূল্যের এ বিপুল পরিমাণ গহনা জব্দ করা হয়।

রোববার শুল্ক গোয়েন্দা কর্তৃপক্ষের সহকারী কমিশনার দিপা রাণী হালদার স্বাক্ষরিত এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, রাজধানীর বনানীর হোটেলে দুই তরুণী ধর্ষণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদ সেলিম ও তার ছেলে  শাফাত আহমেদের চোরাচালানের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার তথ্য বিভিন্ন গণমাধ্যমে ব্যাপকভাবে আলোচিত হচ্ছে। কোনো কোনো তথ্যে দেখা যায়, মেসার্স আপন জুয়েলার্সের মালিকরা অবৈধ ব্যবসার আড়ালে ‘ডার্টি মানি’ অর্জন করেছেন, যা মানিলন্ডারিং সংক্রান্ত অপরাধ।

এ ঘটনায় এই ‘ডার্টি মানি’র যোগসূত্র রয়েছে বলেও প্রমাণ পেয়েছেন গোয়েন্দারা। ধর্ষণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে অবৈধ ব্যবসার অভিযোগটি খতিয়ে দেখাকে ‘পাবলিক ডিমান্ড’ হিসেবে দেখছে শুল্ক গোয়েন্দা।

‘তাই অভিযোগটি আমলে নিয়ে গভীর অনুসন্ধানে নেমেছে শুল্ক গোয়েন্দা। এরই অংশ হিসেবে রোববার সকাল থেকে আপন জুয়েলার্স, ডিসিসি মার্কেট শাখা (বিন- ১৮১৪১০১১৯২৭), আপন জুয়েলার্স, সীমান্ত স্কোয়ার শাখা (বিন- ১৯১৫১০২১৭৩০), আপন জুয়েলার্স, উত্তরা শাখা (বিন- ১৮০২১০২৮৭৮৫), আপন জুয়েলার্স, মৌচাক শাখা (বিন- ১৯০৬১০০৫৯৬৪) এবং আপন জুয়েলার্স, গুলশান এভিনিউ শাখা (বিন- ১৮১৪১০৭১৬৫৭) শাখায় একযোগে অভিযান চালানো হয়।’

এরমধ্যে সুবাস্তু টাওয়ারে আপন জুয়েলার্সের গুলশান এভিনিউ শাখা (বিন- ১৮১৪১০৭১৬৫৭) বন্ধ থাকায় এটি সিলগালা করা হয় বলে জানান গোয়েন্দারা।

প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, অভিযানে আপন জুয়েলার্স, মৌচাক মার্কেট শাখায় সর্বমোট ৫৩,৫১৮.০২ গ্রাম ওজনের স্বর্ণালঙ্কার জব্দ করা হয়। যার বাজার মূল্য ১৯ কোটি ১১ লাখ ৯৩ হাজার ৪৭১ টাকা।

এই শাখায় ২ কোটি ৩৭ লাখ ৮৯ হাজার ৩০০ টাকার মোট ১৭.৩৫ গ্রাম ওজনের ডায়মন্ডের অলঙ্কার পাওয়া যায়।

আপন জুয়েলার্স, সীমান্ত স্কোয়ার শাখায় সর্বমোট ৮১,৬৮৮.৬ গ্রাম ওজনের স্বর্ণালঙ্কার পাওয়া যায়, যার বাজার মূল্য ৩২ কোটি ১৪ লাখ ৪৪ হাজার ৬৪১ টাকা। আর ডায়মন্ডের অলঙ্কার জব্দ করা হয় ৩৩.৪৪ গ্রাম ওজনের, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ৪৩ লাখ ৫৪ হাজার ১০০ টাকা।

উত্তরায় আপন জুয়েলার্সের শাখায় প্রায় ৩২ কোটি ২৬ লাখ ৭০ হাজার টাকার সর্বমোট ৮২,০০০ গ্রাম ওজনের স্বর্ণালঙ্কার জব্দ করা হয়। সেখানে ডায়মন্ডের অলঙ্কার ছিল ৯.৭ গ্রাম ওজনের,  যার বাজার মূল্য ১ কোটি ৩৩ লাখ টাকা।

আপন জুয়েলার্স, ডিসিসি মার্কেট শাখায় সর্বমোট ৬৮,৪৬২.৩০ গ্রাম ওজনের স্বর্ণালঙ্কার আটক করা হয়। এসব অলঙ্কারের বাজার মূল্য ২৫ কোটি ৭৪ লাখ ১৮ হাজার ২৪৮ টাকা।

কর্মকর্তারা জানান, রোববারের অভিযানে আপন জুয়েলার্সের পাঁচটি শাখার চারটিতে মোট ২৮৬ কেজি স্বর্ণালঙ্কার ও ৬১ গ্রাম ডায়মন্ডের অলঙ্কার পাওয়া গেছে। স্বর্ণের মোট মূল্য প্রায় ৮০ কোটি ২৩ লাখ টাকা এবং ডায়মন্ডের মোট মূল্য প্রায় ৫ কোটি ১৫ লাখ টাকা। সর্বমোট স্বর্ণ ও ডায়মন্ডের মূল্য প্রায় ৮৫ কোটি ৩৮ লাখ টাকা।

শুল্ক গোয়েন্দা কর্তৃপক্ষ জানায়, এসব অলঙ্কার সাময়িকভাবে আটক করে শুল্ক আইন  অনুসারে প্রতিষ্ঠানসমূহের জিম্মায় দেয়া হয়েছে। এখন এসব মূল্যবান পণ্যের কাগজ-পত্র যাচাই-বাছাই করা হবে। অনুসন্ধানে কোনো অনিয়ম প্রমাণিত হলে আপন জুয়েলার্স ও প্রতিষ্ঠানের মালিকদের বিরুদ্ধে চোরাচালান এবং মানিলন্ডারিংয়ের অভিযোগে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তবে প্রাথমিকভাবে  এসব স্বর্ণ ও ডায়মন্ডের বৈধ উৎস ও পরিশোধযোগ্য শুল্ককরাদির যথেষ্ট প্রমাণাদি দিতে পারেনি আপন জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষ।