এবার হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পয়েন্টে দেখবেন ‘ইত্যাদি’

চ্যানেল ডেস্ক : ইতিহাস, ঐতিহ্য, সভ্যতা, সংস্কৃতি, পর্যটন ও দর্শনীয় স্থানগুলোতে গিয়ে ইত্যাদি ধারণের ধারাবাহিকতায় এবারের পর্ব ধারণ করা হয়েছে পাবনা জেলার ঈশ্বরদীর পাকশীস্থ আমাদের দেশের শতাব্দি পেরিয়ে আসা একমাত্র ইস্পাত নির্মিত সর্ববৃহত্ রেল সেতু ঐতিহ্যবাহী হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পয়েন্টে। শুধুমাত্র রেল চলাচলের জন্য ইস্পাত নির্মিত এত বিশাল সেতু সারাবিশ্বেই বিরল।
পেছনে রেল সেতু হার্ডিঞ্জ ব্রিজ, সামনে সড়ক সেতু লালন শাহ ব্রিজ আর মাঝখানে পাবনা জেলার বিভিন্ন উল্লেখযোগ্য স্থাপনা ও বৈশিষ্ট্যকে কেন্দ্র করে নির্মিত ইত্যাদির মঞ্চ। প্রাচীন আর বর্তমানের দুটি পাশাপাশি নিদর্শন এবং পাশে বহমান নদীর ধারা সবকিছু মিলিয়ে চমত্কার দর্শনীয় স্থান এই হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পয়েন্ট।
শুধু অনুষ্ঠান নির্মাণেই নয়, স্থান নির্বাচনেও রয়েছে হানিফ সংকেতের ক্ষুরধার বুদ্ধিমত্তা ও তীক্ষ পর্যবেক্ষণ। তার প্রমাণ গঙ্গার তীরে হার্ডিঞ্জ ব্রিজের নিচে ইত্যাদি অনুষ্ঠান ধারণ। অনুষ্ঠান ধারণের সময়ও কখনো তুমুল বৃষ্টি, কখনো গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি, সাথে ছিল ঝড়ো হাওয়া। এর ফলে নদী তীরের এই মাঠটি হয়ে ওঠে কর্দমাক্ত। এতসব প্রাকৃতিক বিপর্যয় উপেক্ষা করে হার্ডিঞ্জ ব্রিজের সামনে উন্মুক্ত স্থানে হাজার হাজার দর্শক উপস্থিত হয়েছিলেন তাদের প্রিয় ইত্যাদি সামনে বসে সরাসরি উপভোগ করার জন্য। এবারের পর্বটি ধারণ করা হয়েছে গত ১৯ সেপ্টেম্বর।
বৈরি আবহাওয়া সত্ত্বেও বৃষ্টি উপেক্ষা করে দীর্ঘসময় ধরে আমন্ত্রিত দর্শকরা মন্ত্রমুগ্ধের মতো উপভোগ করেছেন ইত্যাদির নান্দনিক সব পর্ব। অবাক বিষ্ময়ে দেখেছেন একটি অনুষ্ঠান তৈরি করতে কতটা শ্রম দিতে হয়। আর এ জন্যই ইত্যাদি আজ দেশসেরা অনুষ্ঠান, সব শ্রেণি-পেশার মানুষের অন্তরের অনুষ্ঠান। শেকড় সন্ধানী ইত্যাদিতে সবসময়ই দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে প্রচারবিমুখ, জনকল্যাণে নিয়োজিত মানুষদের খুঁজে এনে তাদের বিভিন্ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরা হয়। যাতে তাদের কাজ দেখে অন্যেরাও অনুপ্রাণিত হতে পারেন।
এছাড়াও থাকে দেশি-বিদেশি অচেনা-অজানা স্থানকে নিয়ে তথ্যভিত্তিক শিক্ষামূলক প্রতিবেদন। নিয়মিত পর্বসহ এবারও রয়েছে বিভিন্ন সমসাময়িক ঘটনা নিয়ে বেশকিছু সরস অথচ তীক্ষ নাট্যাংশ। স্বদেশি বিয়েতে ভিনদেশি সিরিয়ালের প্রভাব, বিয়ে বাড়ির ব্যতিক্রমী আয়োজন, বন্ধুত্বে কালো তালিকা, ভেজালের জাল, অবান্তর সন্দেহ, ভাসমান ভাষার ব্যবসাসহ বিভিন্ন বিষয়ের ওপর রয়েছে বেশ কয়েকটি নাট্যাংশ।
ইত্যাদির এই পর্বটি একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচার হবে আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর রাত ৮টার বাংলা সংবাদের পর। ইত্যাদি রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন।