কাপাসিয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে জেলের কান কেটে নিলো প্রতিপক্ষ

কাপাসিয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে জেলের কান কেটে নিলো প্রতিপক্ষ

কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি: গাজীপুরের কাপাসিয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আঃ রাজ্জাক নামে এক জেলের কান কেটে ফেলেছে প্রতিপক্ষের লোকেরা।৯ আগস্ট বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার কুশদী গ্রামে সংঘটিত এ ঘটনায় থানায় এজাহার দাখিল হয়েছে।

এজাহারের বরাত দিয়ে কাপাসিয়া থানার এসআই নিতাই চন্দ্র দাস বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে জানান, উপজেলার বারিষাব ইউনিয়নের কুশদী গ্রামের মুন্সি বাজারে স্থানীয় আলতাফের একটি চা স্টল রয়েছে।গতকাল বুধবার মাগরিবের সময় উপজেলার বাঘুয়া গ্রামের মৃত আঃ করিমের ছেলে দুলু  ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা দেশীয় অস্রশস্রে সজ্জিত হয়ে হঠাৎ করে আলতাফের চায়ের দোকানের উপর হামলা চালায়।এ সময় আলতাফের ডাক-চিৎকারে তার শ্বাশুড়ী সখিনা বেগম(৬০) ও প্রতিবেশি জেলে আঃ রাজ্জাক(৫৫) এগিয়ে আসলে তাদেরকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে বেধড়ক পেটায় ও এলোপাথাড়িভাবে কোপায় দুলু গং।

এতে সখিনার শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখম হয় এবং তার কোমরের হাড় ভেঙ্গে যায়।প্রতিপক্ষের লোকদের ধারালো অস্রের আঘাতে জেলে রাজ্জাকের মাথা ও কান কেটে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাদেরকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে রাত ৮টার দিকে কাপাসিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।তারা বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে অভিযুক্ত দুলু বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে জানান, আমার মালিকানাধীন জমিতে চা স্টল বানিয়ে অবৈধভাবে ব্যবসা করছিল আলতাফ। আমার জমি আমি দখলে নিয়েছি। আমরা কাউকে মারধর করিনি।আমাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সঠিক নয়।

কাপাসিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে বলেন, এ ঘটনায় একটি এজাহার পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য এসআই নিতাই চন্দ্র দাসকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।