কাপাসিয়ায় বিজ্ঞান মেলা পরিদর্শন করলেন রিমি এমপি

রিমি এমপি

মোহাম্মদ মনজুরুল হক গাজী: ‘মেধাই সম্পদ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিই ভবিষ্যৎ’- এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর এর তত্ত্বাবধানে এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলা প্রশাসন ১৯ ও ২০ মার্চ দু’দিন ব্যাপি উপজেলা পরিষদ মাঠে ৩৯তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ, বিজ্ঞান মেলা এবং ৩৯তম জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড-২০১৮ এর আয়োজন করে।

বিকাল ৩ টায় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, বিশিষ্ট লেখিকা, স্থানীয় এমপি বঙ্গতাজ কন্যা সিমিন হোসেন রিমি মেলায় অংশগ্রহণকারী স্টলগুলো পরিদর্শন করেন। স্কুল-কলেজের ছেলে-মেয়েদের দ্বারা (শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে) বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির জটিল ও কঠিন বিষয় বস্তুর উদ্ভাবন শিক্ষার্থীদের সৃজনশীলতাই প্রকাশে পেয়েছে। বিশেষ করে রোবট তৈরি, ড্রোন, বায়োগ্যাস প্লান্টের মাধ্যমে আদর্শ খামার বাড়ি তৈরিসহ নানা আকর্ষনীয় উদ্ভাবন দেখে এবং ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের উপস্থাপনা দেখে এমপি তাদের কাজের প্রশংসা ও সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। এ সময় উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) নাজমুস সাকিবসহ বিভিন্ন অফিসের কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকমন্ডলী, শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিবর্গ, শিক্ষার্থীসহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা এমপির সাথে ছিলেন। মেলা পরিদর্শনের পূর্বে এমপি উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন সংলগ্ন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, কাপাসিয়া শাখা কার্যালয়ের উদ্বোধন করেন।

এর আগে সকাল ১১টায় বিজ্ঞান মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাকছুদুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রধান অতিথি ছিলেন সিমিন হোসেন রিমি এমপি। এমপির অনুপস্থিতিতে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মুহম্মদ শহীদুল্লাহ মেলার উদ্বোধন করেন। এতে বিশেস অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার আজিজুর রহমান পেরা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এড. রেজাউর রহমান লস্কর মিঠু, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সামছুন নাহার ডেইজি।

মেলা উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রকিব হাসান বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে জানান, আগামীকাল বিকেলে অলিম্পিয়াড প্রতিযোগীদের বিজয়ীদের মাঝে ও শ্রেষ্ঠ স্টলদের পুরস্কার প্রদান করা হবে। তিনি আরো জানান, সিনিয়র ক্যাটাগরিতে কাপাসিয়া ডিগ্রি কলেজ, বঙ্গতাজ ডিগ্রি কলেজসহ ৫টি কলেজের স্টল, জুনিয়র ক্যাটাগরিতে কাপাসিয়া পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, কাপাসিয়া হরিমঞ্জুরী পাইলট বালিকা বিদ্যালয়সহ ৯টি স্কুলের স্টল এবং উন্মুক্ত ক্যাটাগরিতে ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তাদের ৩টি স্টলসহ মোট ১৭টি প্রতিষ্ঠান এবার মেলায় অংশগ্রহণ করেন।