কাপাসিয়ায় মসজিদের রাস্তা বন্ধ করে দিয়ে ইটের দেয়াল

কাপাসিয়ায় মসজিদের রাস্তা বন্ধ করে দিয়ে ইটের দেয়াল

কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি:
গাজীপুরের কাপাসিয়ার দড়ি ভাকুয়াদী দক্ষিন পাড়া গ্রামের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে যাওয়ার এক মাত্র রাস্তাটি বন্ধ করে ইটের দেয়াল ও ঘর তৈরী করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী কাপাসিয়া উপজেলা নিবার্হী অফিসার ও জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ করেন।

জানা যায়, একই এলাকার নুরে আলম ইটের সলিং করা একটি রাস্তা সহ জমিটি গত ৮ বছর আগে একই গ্রামের আবুল কালাম শেখের কাছ থেকে কিনে নেয়। জমি কেনার পর থেকে তিনি রাস্তাটি বন্ধ করার জন্য কয়েকবার চেষ্টা করেন। কিন্ত এলাকার মুসল্লীদের প্রতিরোধে রাস্তাটি বন্ধ করতে না পেরে সম্প্রতি রাতের আঁধারে রাস্তাটির মধ্যে ইটের দেয়াল দিয়ে বন্ধ করে দেয়্ এবং অপর পাশে একটি দোকান ঘর নির্মান করে। এলাকাবাসীর বারবার বাধা দেয়া সত্বেও তিনি রাস্তাটি বন্ধ করে দিয়েছেন।

এলাকার মুসল্লী আবুল কাসেম ও ইলিয়াস শেখ জানান,  বৃটিশ আমলে এলাকার লোকজন মিলে এলাকার একমাত্র জামে মসজিদটি তৈরী করেন। এরপর থেকে এলাকার সকল ধর্মপ্রান মুসল্লীরা এ মসজিদে নামাজ আদায় করে আসছেন। বর্তমানে মসজিদটিতে প্রতিদিন প্রায় দুশতাধিক মুসল্লী নামাজ আদায় করে থাকেন। প্রতি বৃহস্পতিবার উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে মুসল্লীরা মার্কাজ বয়ান করে থাকেন। মসজিদের রাস্তাটি বন্ধ করার ফলে এলাকার লোকজন নামাজ পড়তে আসতে পারছে না। ফলে এলাকার সাধারন মুসল্লীদের মধ্যে উত্তেজনা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এ ব্যাপারে নুরে আলমের সাথে মোবাইল ফোনে(০১৭৫১৯১৩১৮৪) যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এটা আমার নিজের জমি। নিজের জমিতে দেয়াল তৈরী করেছি। প্রয়োজনে আমি মসজিদে যাওয়ার জন্য রাস্তা করে দিব।

স্থায়ীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো: মিজানুর রহমান মাস্টার বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে বলেন, আমি এলাকায় গিয়ে ঘটনাটি দেখেছি। নুরে আলমকে দেয়াল ভেঙ্গে ফেলার নির্দেশ দিয়েছি।

কাপাসিয়া উপজেলা নিবার্হী অফিসার আনিসুর রহমান বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।