কাপাসিয়া আদালত পাড়ায় স্ত্রী খুন, ঘাতক স্বামী ঢাকায় গ্রেফতার

অধ্যাপক শামসুল হুদা লিটনঃ গাজীপুরের কাপাসিয়া শহরের আদালত পাড়ায় শামিমা(৩০) নামে এক মহিলা স্বামীর হাতে  খুন হয়েছেন। নিহতের মাউশা ও লামিয়া নামে ২ মেয়ে রয়েছে। দশ বছর বয়সী মাউশা ৪র্থ ও সাত বছর বয়সী লামিয়া ১ম শ্রেনীতে পড়ে।

নিহত শামীমা শ্রীপুর উপজেলার গোসিঙ্গা ইউনিয়নের নারায়ণপুর গ্রামের মৃত আহমদ আলীর মেয়ে। তার স্বামীর নাম হাবিবুর রহমান(৪০)। সে কাপাসিয়া বাজারের গ্রিলের দোকানের মালিক। সে উপজেলা সদরের সাফাইশ্রী গ্রামে আবদুর রশিদের ছেলে । ঘাতক স্বামী হাবিুবরকে কাপাসিয়া পুলিশ ঢাকার জুরাইন এলাকার একটি বাসা থেকে গ্রেফতার করেছে।

পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, হাবিবুর তার স্ত্রী ২ সন্তানকে নিয়ে উপজেলা পরিষদের সামনে আদালত পাড়া রুহুল আমীনের বাড়ীতে ১ বছর ধরে ভাড়া থাকত। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তার ২ মেয়ে মাউশা ও লামিয়া উপজেলার নারায়ন পুর নানীর বাড়ীতে বেড়াতে দিয়ে আসে। আজ শুক্রবার ভোরে হাবিবুর রহমান তার স্ত্রীকে বাসায় দা দিয়ে কুপিয়ে এবং গামছা দিয়ে শ্বাস রোদ্ধ করে হত্যা করে। পরে সে বাসার দরজায় তালা লাগিয়ে পালিয়ে  গিয়ে তার এক আত্বীয়ের বাসায় ঢাকার জুরাইনে গিয়ে আশ্রয় নেয়।

ঢাকার বাড়ীর লোকজন তার গতিবিধি সন্দেহ হলে হাবিবুরকে একটি রুমে আটকিয়ে জিজ্ঞাসাবা করে। পরে সে তার স্ত্রীকে হত্যা করার কথা স্বীকার করে। এ খবর মোবাইল ফোনে  কাপাসিয়া থানা পুলিশকে জানালে থানার দারোগা মনিরুজ্জামান ও হেলাল কয়েকজন পুলিশ নিয়ে  আজ বেলা তিনটার দিকে আদালত পাড়ার ভাড়া বাসার তালা ভেঙ্গে রক্তমাখা লাশ উদ্ধার করেন।  লাশের সুরতহাল রির্পোট তৈরী করে থানায় নিয়ে আসে।

কাপাসিয়া বাজারের ব্যবসায়ী কামাল বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে জানান, হাবিুরের সাথে তার স্ত্রীর দীর্ঘ দিন থেকে পারিবারিক ভাবে ঝগড়া বিবাদ চলছিল। ২জনের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটেছে বলে ওই ব্যবসায়ী উল্লেখ করেন।

কাপাসিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে  জানান,  হাবিবুরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তার বিরুদ্ধে কাপাসিয়া থানা ও পাশ্ববর্তী  থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা রুজু হয়েছে । নিহতের মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপানো হয়েছে। গলায় গামছা পেচানো অবস্থায় ছিল এবং ঘাড়ের পিছনে চুলের গোড়ায় থেতলানো অবস্থায় রয়েছে বলে জানান তিনি।

থানার ওসি আরও জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।  হত্যাকান্ডের মুটিভ সম্পর্কে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।