খামারীরা পণ্যের সঠিক মূল্য পাবেন : কাপাসিয়ায় প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি: আগামী বাজেটে আমদানীকৃত পশু, মৎস্য ও পোল্ট্রি খাদ্যে ব্যবহৃত ভুট্টা ও সয়াবিনের উপর আরোপিত শুল্ক প্রত্যাহারের প্রস্তাব করা হবে। দেশে গড়ে উঠা বিকাশমান অসংখ্য ছোট ও মাঝারি আকৃতির পশু, মৎস্য ও পোল্ট্রি খামারীরা দিন দিন লোকসানের সম্মুখীন হচ্ছেন। অনেক সময় বাজারে খাদ্যের মূল্যের চেয়ে খামারে উৎপাদিত মাছ, মাংস ও মুরগীর দাম অনেক কম থাকে। এতে করে অনেক প্রান্তিক খামারীরা এই লোকসানের ফলে খামার বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়। তাই এ খাতে খামারীদের রক্ষার্থে ও বাজারে ন্যায্য মূল্য পাওয়ার জন্য সরকারী ভাবে মনিটরিং করা হবে। যাতে প্রান্তিক খামারীরারা তাদের উৎপাদিত পণ্যের সঠিক মূল্য পেতে পারেন।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি বুধবার গাজীপুরের কাপাসিয়ায় উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামে ছোঁয়া এগ্রো প্রোডাক্টস লিঃ এর বার্ষিক পরিবেশক সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

ছোঁয়া এগ্রো প্রোডাক্টসের চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সংস্কৃিত বিষয়ক মন্ত্রণালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বঙ্গতাজ কন্যা সিমিন হোসেন রিমি এমপি, ছোঁয়া এগ্রো প্রোডাক্টসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ টিপু সুলতান।

এ সময় অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক এমপি মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্, মৎস্য অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. ইকবাল আজম, মৎস্য অধিদপ্তরের বিভাগীয় কর্মকর্তা ড. আঃ হালিম, সহকারী পুলিশ সুপার পংকজ দত্ত, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাকছুদুল ইসলাম, ইসলামী ব্যাংক কর্মকর্তা আমিনুর রহমান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট রেজাউর রহমান লষ্কর মিঠু, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মাহবুব উদ্দীন আহমদ সেলিম, সাধারণ সম্পাদক ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান সাখাওয়াত হোসেন সেলিম প্রমুখ।

পরে মন্ত্রী বিকালে সিংহশ্রী ইউনিয়নে ডায়মন্ড এগ্ লিমিটেডের কারখানা পরিদর্শন করেন।