চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে কাপাসিয়ায় সিএইচসিপিদের অবস্থান কর্মসূচি

স্টাফ রিপোর্টার: চাকরি জাতীয়করণের এক দফা দাবিতে সারা দেশের ন্যায় গাজীপুরের কাপাসিয়ায় তিন দিনের অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন উপজেলার সকল কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার (সিএইচসিপি)।

কাপাসিয়া উপজেলা কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে সিএইচসিপিরা অবস্থান নেন।তাদের অবস্থান কর্মসূচি শনিবার সকাল ১০টায় শুরু হয়ে চলবে সোমবার বিকেল পর্যন্ত। এ কর্মসূচির কারণে উপজেলার ৫২টি কমিউনিটি ক্লিনিকে তালা ঝুলছে।

অবস্থান কর্মসূচির সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন সিএইচসিপিদের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা কামাল হোসেন সরকার, উপজেলা সিএইচসিপি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি কাজী আলাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন, সিএইচসিপি সজীব সিকদার প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, “কমিউনিটি ক্লিনিকের ১৪ হাজার কর্মী জনগনের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে কাজ করছে। আমরা ২০১১ সাল থেকে কাজ করেও বেতন ভাতা পাচ্ছি না। ফলে পরিবার-পরিজন নিয়ে খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে। বয়স না থাকায় অন্য চাকরিতেও যেতে পারছি না। তাই আমরা সরকারের কাছে আমাদের চাকরি জাতীয়করণের দাবি জানাচ্ছি।”

তারা আরও বলেন, “দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। দাবি মোদের একটাই চাকুরী মোদের রাজস্ব চাই।”

এর আগে দাবী আদায়ের লক্ষ্যে সিএইচসিপি অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কমিটি সারা দেশে একযোগে কর্মসূচি পালনের ডাক দেয়। কর্মসূচির মধ্যে প্রত্যেক উপজেলায় ১৮ জানুয়ারি বিকাল ৩ টায় সংবাদ সম্মেলন, ২০, ২১ ও ২২ জানুয়ারি স্ব স্ব উপজেলায় অবস্থান কর্মসূচি, ইউএনও ও এমপিকে স্মারকলিপি প্রদান, ২৩ জানুয়ারি প্রত্যেক সিভিল সার্জন অফিসে অবস্থান কর্মসূচি, সিভিল সার্জন ও জেলা প্রশাসককে স্মারকলিপি প্রদান, ২৪, ২৫ ও ২৬ জানুয়ারি কর্মবিরতি, ২৭ জানুয়ারি থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবে অবস্থান কর্মসূচি।

কেন্দ্রীয় কমিটির এক প্রেস রিলিজে বলা হয়, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সব ধরনের অনলাইন রিপোর্ট বন্ধ থাকবে। এছাড়া ৩১ জানুয়ারির মধ্যে সরকার দাবী না মানলে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ঢাকায় আমরণ অনশন।