দরূদ পাঠকারীর জন্য যে দোয়া করেছেন বিশ্বনবি

বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর উম্মতের আমলনামায় নেক জমা করার জন্য আল্লাহ তাআলার সুমহান দরবারে প্রার্থনা করেন। এ প্রার্থনা ওই বান্দার জন্য সৌভাগ্যের যে ব্যক্তি তাঁর প্রতি দরূদ পাঠ করেন।

Hadith

হজরত আম্মার ইবনে ইয়াসির রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, নিশ্চয় আল্লাহ তাআলার এমন একজন ফেরেশতা রয়েছে, যাকে বান্দার কথা শ্রবণ করার শক্তি দান করা হয়েছে।

(আল্লাহর বান্দাদের মধ্যে) যে কেউ আমার ওপর দরূদ পাঠ করে ওই ফেরেশতা দরূদ পাঠকারীর নাম আমার নিকট পৌছে দেয়।

আর আমি আমার প্রতিপালকের কাছে প্রার্থনা করেছি- (আমার) কোনো উম্মত আমার ওপর দরূদ পাঠ করলে বিনিময়ে তাকে যেন দশটি নেক বা সাওয়াব দান করা হয়। (জামেউস সগির, সিলসিলাহ সহিহ)

উল্লেখিত হাদিসের আলোকে বুঝা যায় যে, আল্লাহর বান্দারা তাঁর প্রিয় হাবিবের প্রতি দরূদ পাঠক করুক, এটা আল্লাহ তাআলাও চান। আর এ কারণেই তিনি দরূদ পৌছানোর জন্য ফেরেশতা নিয়োগ করেছেন।

আর এ কারণেই বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর প্রতি দরূদ পাঠকারীর জন্য নেক বা সাওয়াব দানের ব্যাপারে আল্লাহ তাআলার নিকট প্রার্থনা করেছেন।

সুতরাং উম্মাতে মুহাম্মাদির উচিত, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের প্রতি বেশি বেশি দরূদ পাঠ করা।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের প্রতি বেশি বেশি দরূদ পাঠ করার তাওফিক দান করুন। আমিন।