ধ্বংসের মুখে গাজীপুরের বিসিক শিল্প নগরী, দেখার কেউ নেই

বিসিক শিল্পনগরী
রেজাউল সরকার (আঁধার): ৩০ বছর ধরে অবহেলা আর অযত্নে পড়ে আছে গাজীপুর কোনাবাড়ি ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্প করপোরেশন (বিসিক শিল্পনগরী)। অবহেলা আর অযত্নের কারণেই শিল্পের বিপ্লব ঘটনো সম্ভব হচ্ছে না এ নগরীতে।
১৯৮৭ সালে বিশাল সম্পত্তির উপর গড়ে তোলার পর কোনো কাজে আসছে না। দীর্ঘ ৩০ বছরের পথ পাড়ি দিলেও এর কোনো বিকাশ ঘটেনি।
চার পাশে বর্জ্য আবর্জনা আর ফুটপাতের বিভিন্ন দোকানপাটে ছেয়ে গেছে কুটিরশিল্প নগরী। কেউ আবার শিল্পের নামে বিসিকের বরাদ্দকৃত জমিতে মার্কেট নির্মাণ, রেস্টুরেন্টে, আবাসিক ভবন তৈরি করে দেহব্যবসা সহ নানা অনৈতিক কার্যকলাপ চালাচ্ছে।
বিসিকি আইনে শিল্প ছাড়া কোনো মার্কেট বা অন্যন্য প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করা হলে বরাদ্দকৃত জমি বাতিল হবে। প্রায় দু’যুগের বেশি অবহেলা আর অযত্নে পড়ে থাকার পরে বিসিকের ১-২নং গেটের রাস্তা সংস্কার করা হলেও তা আবার রেন্ট এ কার এর দখলে।
পানি নিষ্কাশনের সঠিক ড্রেনেজ ব্যবস্থা সহ কোনো উন্নয়ন না হওয়ায় বৃষ্টি ছাড়াই ডাইং কারখানার বর্জ্য পানিতে পুরো বিসিক এলাকা রাস্তা তলিয়ে যায়। যার ফলে হাজার হাজার শ্রমিকরা দূর্ভোগে পড়ে। দেশের প্রথম শ্রেণির কুটিরশিল্পটি এখন হুমকির মূখে পড়ে আছে।
নিটিং ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম জানান, পণ্য আনা-নেওয়ার জন্য কোনো গাড়ি তার কারখানা পর্যন্ত আসতে পারে না। রাস্তার খানা-খন্দে পণ্য বোঝাই গাড়ি আটকে থাকে। আর এ কারণে অনেকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুটিয়ে নিচ্ছেন বলেও তিনি জানান।
বিসিক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আজিজের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে সম্ভব হয়নি।
এব্যাপারে কোনাবাড়ি বিসিক অফিসে যোগাযোগ করা হলে জানা যায়, বেসিক এস্টেট ম্যানেজার বদলি হয়ে গেছে। এখন কেউ নেই।