প্রতি কেজি গরুর মাংস ৩০০ টাকায় খাওয়াতে চায় মাংস ব্যবসায়ীরা

স্টাফ রিপোর্টার: দেশের মানুষকে প্রতি কেজি গরুর গোশত ৩০০ টাকায় খাওয়াতে চায় মাংস ব্যবসায়ীরা। দাবিদাওয়া বাস্তবায়ন করা হলে ৩০০ টাকায় গরুর মাংস খাওয়ানো যাবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব বিরউল আলম।

তিনি বলেন, ‘ভারতীয় গরু আমদানির ব্যবস্থা ঠিক করা হলে ৩০০ টাকা কেন আরও কম দামেও মাংস আমরা শহরবাসীকে খাওয়াইতে পারব।’

আজ শুক্রবার বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় এক সংবাদ সম্মেলন শেষে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতি ও ঢাকা মেট্রোপলিটন মাংস ব্যবসায়ী সমিতির যৌথ উদ্যোগে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

রবিউল আলম বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে বলেন, তাঁদের দাবি-দাওয়া মেনে না নেওয়া হলে সারা বাংলাদেশে অনির্দিষ্টকাল ধর্মঘট ডাকা হবে। মানা হলে ধর্মঘটের আর কোনো প্রয়োজন নেই। তিনি আশা করছেন ধর্মঘট আর লাগবে না।

রবিউল আলম বলেন, দাবি মানা এক জিনিস আর বাস্তবায়ন করা আরেক জিনিস। বাস্তবায়ন যদি করে তো একটু সময় লাগবে। যদি গরু আমদানি ওইভাবে বাস্তবায়ন করে আনা হয় তাহলে ৩০০ টাকার কমেও মাংস খাওয়ানো সম্ভব।

গাবতলী পশুর হাটে অতিরিক্ত খাজনা আদায় বন্ধসহ চার দফা দাবিতে টানা ছয় দিনব্যাপী ধর্মঘটের ডাক দেয় বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতি ও ঢাকা মেট্রোপলিটন মাংস ব্যবসায়ী সমিতি। গত সোমবার থেকে শুরু হওয়া এই ধর্মঘট শনিবার শেষ হবে।

রবিবার তো মাংস জবাই বন্ধ থাকে। সেদিনও মাংস জবাই হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে রবিউল আলম বলেন, ‘তা জানি না। আমাদের শনিবার পর্যন্ত ধর্মঘট ছিল, তা পালন করেছি। শনিবারের পর থেকে আমাদের ধর্মঘট স্থগিত থাকবে, প্রত্যাহার হবে না। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় আর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মিটিং আছে রবিবারে। রোববারে শহরে গরু জবাই হবে।’