বিজ্ঞাপন চ্যানেলের প্রশংসা করলেন প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব

উপ-প্রেস সচিব

স্টাফ রিপোর্টার: দেশের জনপ্রিয় অনলাইন মিডিয়া বিজ্ঞাপন চ্যানেলের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব মোঃ আশরাফুল আলম খোকন। তিনি বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে আগামী দিনগুলোতে আরও বেশি সাহসি ভূমিকা রাখতে হবে। মিডিয়াটি গরীব, দু:খি, মেহনতি ও নির্যাতিত-নিপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়াবে বলে প্রত্যাশা করেন।বিজয় মেলার সবগুলো খবরাখবর প্রকাশের জন্য বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

আজ ৩০ ডিসেম্বর শুক্রবার রাতে গাজীপুরের কাপাসিয়ায় তারাগঞ্জ এইচ এন স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে বঙ্গতাজ তাজউদ্দীন ও ময়েজউদ্দিন স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে আয়োজিত ১৭দিন ব্যাপী বিজয় মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজ্ঞাপন চ্যানেলের এডিটর-ইন-চিফ মোঃ সাইফুল ইসলাম মোল্লা প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব মোঃ আশরাফুল আলম খোকনকে চ্যানেলটিতে এই বিজয় মেলা সম্পর্কিত প্রকাশিত নিউজগুলোর কপি হস্তান্তর করার সময় তিনি এ অভিমত ব্যক্ত করেন।

এ সময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর জেলার পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ, কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আজগর রশিদ খান, জেলা  ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ দেলোয়ার হোসেন, দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল গাফ্ফার, তারাগঞ্জ কলেজের পরিচালনা পর্যদের সদস্য মোঃ জাহিদুল হক দীলিপ, গাজীপুর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য নূরে আলম সুমন,  মেলা উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব মোঃ ওসমান গণি শেখ সহ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে শহীদ বঙ্গতাজ তাজউদ্দীন-ময়েজউদ্দীন স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে তারাগঞ্জ এইচ এন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ১৭ দিন ব্যাপি এই বিজয় মেলার উদ্বোধন করা হয় গত ১৪ ডিসেম্বর।

মেলায় নির্মিত মঞ্চ থেকে প্রতিদিন ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, শহীদ বঙ্গতাজ তাজউদ্দীন আহমদ ও ময়েজউদ্দিন আহমেদ এর বর্নাঢ্য রাজনৈতিক জীননের ওপর আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। মেলায় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশ গ্রহনে দেশাত্মবোধক সঙ্গীত, কবিতা আবৃতি, নৃত্য ও বক্তৃতা অনুষ্ঠিত হয় এবং বিজয়ীদের মাঝে আকর্ষনীয় পুরষ্কার বিতরণ করা হয়। বিজয় মেলায় প্রতিদিন শিশু-কিশোরদের জন্য আনন্দদায়ক রাইড, নাগরদোলা ও রকমারী ৩০টি ষ্টল বসানো হয়।

বিজয় মেলাকে কেন্দ্র করে টেলিভিশন লটারির টিকেট থেকে ছোট বাচ্চাদের খেলনার স্টল পর্যন্ত স্থান পায় বিজয় মেলাতে।বিভিন্ন ধরনের রাইডার সহ পাটজাত দ্রব্য, বেগ, কমমেটিকস, জুতা,খেলনা পুতুল ,বাড়িঘরের প্রয়োজনীয় যেমন দা, বটি, বেলন ইত্যাদি দোকানের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের খাবার দোকানগুলো রকমারী খাবারের পসরা সাজিয়ে বসেন দোকানীরা।

প্রতিদিন সকাল থেকে শুরু করে রাত নয়টা পর্যন্ত চলে মেলায় লোকজনের যাতায়াত কেনাকাটা। ছোট বাচ্চা থেকে শুরু করে সব বয়সী মেলাপ্রেমি লোকজন ভীড় জমায় মেলায়।

প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকনের সহযোগীতায় ও তত্বাবধানে মেলার সকল কার্যক্রম পরিচালিত হয়। প্রতিদিন মেলার সকল খবর ধারাবাহিভাবে প্রকাশ করে বিজ্ঞাপন চ্যানেল। দেশের বিখ্যাত শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আজ রাতে মেলাটির সফল পরিসমাপ্তি ঘটে।