ভালুকায় পুলিশ-শ্রমিকের সংঘর্ষ, আহত-৩০

সংঘর্ষ

ভালুকা (ময়মনসিংহ) থেকে তমাল কান্তি সরকার:  ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নের জামিরদিয়া মাস্টারবাড়ী কুমারপাড়া এলাকায় মাহদীন সোয়েটার্স মিল লি: নামে একটি কারখানায় শ্রমিক ছাঁটাইকে কেন্দ্রকে পুলিশের সাথে সংঘর্ষের ঘটনায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহা সড়ক অবরোধ করেছে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা।

জানা যায়, বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টা থেকে শ্রমিকদের বিক্ষোভ ও অসন্তোষ সংঘর্ষে রূপ নেয়। সাড়ে নয়টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। এ সময় দ্বীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয় ঐ রাস্তায়। যাত্রী ও মালবাহী গাড়ী চরম ভোগান্তিতে পড়ে। ঘটনা সামাল দিতে শিল্প পুলিশ বাহিনী শ্রমিকদের উপর লাঠি চার্জ করে এবং বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা ইটপটকেল ছুঁড়তে থাকে। এ সময় অন্তত ৩০ জন শ্রমিক আহত হয়।

শ্রমিকদের দাবী শ্রম আইন অমান্য করে মাহদীন সোয়েটার্স কর্তৃপক্ষ গত এক সপ্তাহ যাবত সু-কৌশলে শ্রমিকদের চাকুরী থেকে বরখাস্ত করছে। প্রতিবাদ করলেই শ্রমিকদের ভাগ্যে নেমে আসে স্থানীয় সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে নির্মম নির্যাতন। শ্রমিকদের অভিযোগ ফ্যাক্টরির ভিতরে গত তিন দিন যাবৎ স্থানীয় সন্ত্রাসী বাহিনী অবস্থান করছে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে। এ সময় সাংবাদিকরা ভেতরে  ঢোকতে চাইলে স্থানীয় সন্ত্রাসী বাহিনী ও মিল সিকিউরিটি গার্ডরা বাঁধা প্রদান করে।

সাবিকুন্নাহার নামে এক কারখানা শ্রমিক জানান, মিথ্যে বাহানায় শ্রমিকদের ছাঁটাই করছে মিল কর্তৃপক্ষ, যা শ্রম আইনে অন্যায়। কেউ প্রতিবাদ করলেই অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও মারধর করে এলাকা ছাড়া করছে গুন্ডা বাহিনী।

উল্লেখ্য, হাঠাৎ করেই কারখানা কর্তৃপক্ষ তিনদিন মিল বন্ধের নোটিশ টাঙ্গিয়ে দেয়। এতে শ্রকিদের মাঝে হতাশা ছড়িয়ে পড়ে।

এ ব্যাপারে শিল্প পুলিশের এসপি মো: বিলøাল হোসেন বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে জানান,ফ্যাক্টরির ভেতরে কোন প্রকার বিশৃংখলা বা অসন্তোষ নেই। আমাদের সদস্যরা নিয়ন্ত্রনে কাজ করে যাচ্ছে।

কারখানা কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে সাংবাদিকদের সাথে তারা এ ব্যাপারে কোন বক্তব্য বা কথা বলতে অস্বীকার করেন।