যুক্তরাষ্ট্রের বোমারু বিমান উত্তর কোরিয়ার উপকূলে

চ্যানেল ডেস্ক : উত্তর কোরিয়ার পূর্ব উপকূলের কাছ দিয়ে মার্কিন বোমারু বিমান উড়ে গেছে। যে কোনো ধরনের হুমকি মোকাবেলায় মার্কিন সামরিক বাহিনী উত্তর কোরিয়ার আকাসশীমায় তাদের যুদ্ধবিমান উড়িয়েছে বলে জানিয়েছে পেন্টাগন। খবর বিবিসির।

একুশ শতকের মধ্যে এই প্রথম কোনো মার্কিন যুদ্ধবিমান বা বোমারু বিমান উত্তর কোরিয়ার উপকূলের বেসামরিক অঞ্চলের সবচেয়ে উত্তর দিক দিয়ে উড়ে গেছে।

পিয়ংইয়ংয়ের পরমাণু কার্যক্রমকে কেন্দ্র করে সাম্প্রতিক সময়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে। সম্প্রতি জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একটি আত্মঘাতী মিশনে রয়েছেন।

মঙ্গলবার প্রথমবারের মতো জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশণে ভাষণ দেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেখানে তার দেয়া বক্তব্যের পাল্টা জবাব দিয়েই উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রি ইয়ং এমন মন্তব্য করেন।

ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনকে একটি আত্মঘাতী মিশনের ‘রকেট মানব’ বলে উল্লেখ করেছিলেন।

রিং বলেন, ট্রাম্পের মতো একজন মানসিক বিকারগ্রস্ত লোকের কাছ থেকে এমন মন্তব্যের পর যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে রকেট হামলা চালানো অনিবার্য হয়ে উঠেছে।

উত্তর কোরিয়াকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দেয়া হবে বলে ট্রাম্প যে মন্তব্য করেছেন তার জন্য তাকে চড়া মূল্য দিতে হবে বলেও হুমকি দিয়েছেন রিং।

পেন্টাগনের তরফ থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যে কোনো হুমকি মোকাবেলায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের হাতে অনেক ধরনের সামরিক পদক্ষেপ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। এই সামরিক প্রদর্শন যুক্তরাষ্ট্রের তরফ থেকে একটি পরিস্কার বার্তা।

ওই বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র এবং এর মিত্র দেশগুলোকে রক্ষা করতে আমরা সামরিক ক্ষমতার পূর্ণ ব্যবহার করার জন্য প্রস্তুত রয়েছি।