রাশিফল » ১৯ থেকে ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত

মেষ রাশি (২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)আপনার কোনো আশা পূরণ হতে পারে। বন্ধূবান্ধবের সঙ্গে দেখা হতে পারে। গৃহস্থালী কাজকর্মে ব্যস্ততা বাড়বে। কারও আচরণে সাময়িক মনোকষ্ট পেতে পারেন। প্রেমের সম্পর্ক খুব বেশি ভালো যাবে না। কোনো বিষয়ে মতোবিরোধ দেখা দিতে পারে। পেটের পীড়ায় ভুগতে পারেন।

বৃষ রাশি (২১ এপ্রিল-২১ মে) ছোট ভাইবোনের দিকে খেয়াল রাখুন। ঘরে বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণের অভাব বোধ করলে বাইরের বন্ধুবান্ধবের সংখ্যা বাড়বে। তরুণ বয়সের অধিকাংশই বন্ধুবান্ধব দ্বারা প্ররোচিত হয়। আর তাই দরকার অভিভাবকদের বাড়তি সতর্কতা। ভ্রমণের সময় চোখকান খোলা রাখুন। প্রেম রোমান্স শুভ। সম্ভাব্যক্ষেত্রে সন্তানলাভের যোগ রয়েছে।

মিথুন রাশি (২২ মে-২১ জুন) পাওনা আদায়ে মাঝে মধ্যে কড়া জবাব দিতে হয়। তবে অনেক সময় তা সম্পর্ক নষ্টের কারণ হতে পারে। এক্ষেত্রে বুঝে শুনে আচরণ করুন। মেজাজ ঠাণ্ডা রাখার চেষ্টা করুন। কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে মনকে জিজ্ঞেস করুন, এটা করা কি আমার জন্যে ভালো? মনই আপনাকে বলে দেবে কখন কী করণীয়। আর্থিক দিক খুব একটা মন্দ যাবে না।

কর্কট রাশি (২২ জুন-২২ জুলাই) বিশ্বাস আর পরিপূর্ণ মনোযোগ থাকলে মানুষের অসাধ্য কিছুই নাই। মাঝে মধ্যে কিছু বাধা কিংবা চ্যালেঞ্জ আসতেই পারে। দৃঢ়ভাবে লেগে থাকুন। সাফল্য আসবেই। আসলে যারা নেতিবাচক তারা প্রথমেই পরাজিত হয় নিজের কাছে। পরবর্তীতে সময়ে অন্যরাও তাদেরকে মূল্যায়ণ করে না। আত্মবিশ্বাসী হোন। বিশ্বকে জয় করে দেখিয়ে দিন আপনিও পারেন। দাম্পত্য কোনো বিষয় নিয়ে চিন্তিত হতে পারেন। স্বল্প দূরত্বে কোথাও বেড়াতে যেতে পারেন।

সিংহ রাশি (২৩ জুলাই-২৩ অগাস্ট) অতীতের কোনো কাজের ফল ভোগ করতে পারেন। ব্যয় বাড়বে। আর্থিক দিক মোটামুটি ভালো যাবে। ব্যাংকিং সম্পর্কিত কোনো কাজের সমাধান হতে পারে। নানামুখী কাজের চাপে ব্যস্ত সময় পার করবেন। পুরানো কোনো রোগে সাময়িক ভুগতে হতে পারে। ভুল বিনিয়োগের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা রয়েছে।

কন্যা রাশি (২৪ অগাস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর) মানুষ বাঁচে আশায়। কেউ কেউ শুধু আশাই দেয়। আর বোকারা সেই আশা নিয়ে পথ চেয়ে বসে থাকে। সময় চলে যায়, আশা আর পূরণ হয় না। তৈরি হতে থাকে সম্পর্কের দূরত্ব। আপনি যেহেতু বোকা নন আপনার যোগ্যতা ও দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে দেখিয়ে দিন সফল হওয়ার জন্যে প্রয়োজনীয় জ্ঞান ও মানসিক শক্তি দুটোই আপনার ভেতেই আছে। ব্যবসায়িক দিক মোটামুটি ভালো যাবে।

তুলা রাশি (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর) প্রতিটি সমস্যার পেছনে লুকিয়ে থাকে সম্ভাবনা। আর তাই সমস্যাকে যখন আপনি চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেবেন তখন প্রাকৃতিকভাবেই আপনি তা থেকে লাভবান হতে পারেন। পেশাগত জীবনে সাময়িক কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার প্রয়োজন হতে পারে। কর্মক্ষেত্রে অন্যের সমালোচনা করে আমরা নিজেরাই নিজেদের জন্য ফাঁদ তৈরি করি। নিজের দিকে একটু খেয়াল করুন, এমন কিছু করছেন না তো! ব্যয় নিয়ন্ত্রণ কঠিন হবে।

বৃশ্চিক রাশি (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর) প্রবাস জীবনে সাময়িক কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হতে পারে। তবে মনোবল হারাবেন না। ধর্মীয় কাজে একটু সময় দিন। প্রার্থণা করুন। দেখবেন সমস্যা বুদবুদের মতো মিলে গেছে। ব্যক্তিগত ও পেশাগত জীবনে দায়দায়িত্ব বাড়বে। কাজকে বিরক্তি কিংবা বোঝা নয়, সুযোগ হিসেবে দেখুন। এ কাজই একসসয় আপনাকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে। কর্মগুণে আপনি সুনাম ও প্রশংসা পাবেন। কেউ কেউ উপার্জন নিয়ে বিকল্প উপায়ের সন্ধান করতে পারেন।

ধনু রাশি (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর) কাউকে ফাঁসাতে গিয়ে যদি নিজেকেই ফেঁসে যেতে হয় তবে সেটা হবে সবচেয়ে অপমানজনক। গোপন কোনো কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ার আশংকা রয়েছে। আত্মসংযমী হলে নিজেকে রক্ষা করতে পারবেন। কর্মক্ষেত্রে যারা ভ্যাট কিংবা ট্যাক্স নিয়ে কাজ করছেন তারা হিসেবে স্বচ্ছতা বজায় রাখার চেষ্টা করুন। অন্যথায় সমস্যায় পড়তে হতে পারে। কারও কারও ক্ষেত্রে দূরের যাত্রা হতে পারে।

মকর রাশি (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি) আপনি যেটা মনে একবার ধারণ করেন সেটা আজীবন লালন করেন। সেটা ঠিক হোক কিংবা ভুল হোক। নিজের বিশ্বাস কিংবা চেতনা অন্যের ওপর চাপিয়ে দেওয়া ঠিক হবে না। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে। এমন কিছু বলা কিংবা করা ঠিক হবে না যাতে কেউ আপনার ক্ষতি করার সুযোগ পায়। বাক সংযমী হোন। দেখবেন অনেক সমস্যা কেটে গেছে। সম্ভাব্যক্ষেত্রে বৈদেশিক বাণিজ্য কিংবা ভ্রমণ হতে পারে।

কুম্ভ রাশি (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি) একটু সতর্ক থাকলেই ভালো করবেন। চলাফেরা ও শরীরের দিকে খেয়াল রাখুন। কারও কারও ক্ষেত্রে রক্তচাপ কিংবা এ সংক্রান্ত সমস্যা দেখা যেতে পারে। ধ্যান করুন। সুস্থ থাকুন। ইতিবাচক জীবনদৃষ্টি চলার পথে নেতিবাচকতার মধ্যেও আপনাকে আশা জাগাবে। কোনো বিষয়ে নতুন চুক্তি আপাতত ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে। দাম্পত্য সম্পর্কের ক্ষেত্রে সাময়িক ভুলবোঝাবুঝি দেখা যেতে পারে। দূরত্ব তৈরি না করে ভালোবেসে কাছে টেনে নিন।

মীন রাশি (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ) নব দম্পতির সন্তানলাভের যোগ রয়েছে। এ ধরনের ক্ষেত্রে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ নিতে বিলম্ব করবেন না। অলসতা ও খেয়ালীপনা নিজের ক্ষতির কারণ হতে পারে। কর্মের পরিবেশ সাময়িক চ্যালেঞ্জিং হতে পারে। ঠাণ্ডা মাথায় গুছিয়ে কাজ করুন। প্রয়োজনে অভিজ্ঞ কারও দিকনির্দেশনা পেতে পারেন। দাম্পত্য দিক ভালো যাবে। বিবাহযোগ্য কারও কারও ক্ষেত্রে বিয়ের কথাবার্তা হতে পারে। ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে।