শ্রীপুরে নেশার টাকার জন্য পিতা-মাতার শিশু বিক্রি, ৬ মাস পর উদ্ধার

শ্রীপুর (গাজীপুর) থেকে মোঃ আকতার হোসেন: শ্রীপুরে নেশার টাকা যোগানোর জন্য এক মাস ১৮ দিনের এক পুত্র শিশুকে নেশাগ্রস্থ পিতা- মাতা ২৮ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেয়ার ঘটনায় ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে শ্রীপুর থানার পুলিশ ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলা স্কায়ার মাষ্টার বাড়ী এলাকা থেকে বিক্রি করা শিশুকে উদ্ধার করেন। এ সময় জন্মদাতা পিতা- মাতা ও নিসন্তানী পিতা- মাতাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

উপজেলা মাওনা ইউনিয়নে চকপাড়া গ্রামে জাহাঙ্গীর আলমের পুত্র মো: সারোয়ার হোসেন সজিবের সঙ্গে ৩ বছর আগে পার্শ্ববর্তী সিংগাদিঘী কাওরান বাজার গ্রামের মোছলেম উদ্দিনের মেয়ে মাছুমা আক্তারের বিবাহ হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে একটি পুত্র সন্তান জন্ম নেয়। পুত্র সন্তানের বয়স ১ মাস ১৮ দিনের মাথায় নেশাগ্রস্থ শিশুর পিতা-মাতা নিসন্তান মজিবুর রহমানের কাছে খোলা ষ্ট্যাম্পে শিশু সন্তানকে ২৮ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন। বিক্রির পর নিসন্তানীর পিতা মাতা শিশু পুত্রের নাম রাখেন আলিফ নাম রেখে লালন-পালন করেন।

শিশু আলিফের ৮ মাস বয়স হলে নেশাগ্রস্থ মা মাছুমা আক্তার নেশা সেবন কারী স্বামী সজিবের বিরুদ্ধে শিশু পুত্রকে জোর করে বিক্রি করে দিয়েছে অভিযোগ থানায় দিলে এস আই কায়সার ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলা স্কয়ার মাষ্টার বাড়ি থেকে বিক্রি করা শিশু সন্তান ও তার পালক মাতা- পিতা ও শিশুর জন্মদাতা পিতাসহ ৩ জনকে আটক করেন।

শ্রীপুর থানার এস আই কায়সার আহম্মেদ বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে জানান, থানায় জিডি করে আটককৃত ও উদ্ধারকৃত শিশুকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।