শ্রীপুরে সেনা সদস্যকে লাঞ্ছিত করেছে ডিবি পুলিশ

গাজীপুর প্রতিনিধি : গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার বেড়াইদেরচালা এলাকায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সদস্যদের হাতে এক সেনা সদস্য লাঞ্ছিত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বেড়াইদেরচালা এলাকায় ওই সেনা সদস্যের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

ডিবি পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত ওই সেনা সদস্য মো. আব্দুর রউফ জানান, তিনি রাজশাহী সেনানিবাসে কর্মরত। ছুটিতে বেড়াইদের চালার নিজ বাসায় এসেছেন।

দুপুরে ছেলেকে বাথরুমে গোসল করাচ্ছিলেন। এসময় সাদা পোশাকে ডিবি পুলিশের কয়েকজন সদস্য কাউকে কিছু না বলে বাড়ির ভেতর ঢুকে পড়ে এবং সোজা বাথরুমে চলে আসে।

লাঞ্ছিত ওই সেনা সদস্য জানান, ডিবির সদস্যরা তার কাছে জানতে চান তিনি স্বাধীন কিনা। তিনি স্বাধীন নন এবং তিনি একজন সেনা সদস্য পরিচয় দেয়ার পরও ডিবি পুলিশের ওই সদস্যরা তাকে জেরা করতে থাকেন। পরে বাইরে বেরিয়ে তাদের পরিচয় জানতে চাইলে তারা উত্তেজিত হয়ে সেনা সদস্য আব্দুর রউফকে সজোরে চরথাপ্পড় মারতে থাকেন।

আবদুর রউফ আরো জানান, সেনা সদস্য পরিচয় দেওয়া সত্ত্বেও ওই ডিবি সদস্যরা তাকে অশালীন ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন। এসময় তারা বলতে থাকেন ‘তোকে এখনি হ্যান্ডকাফ পরিয়ে নিয়ে যাব। কিছুই করতে পারবি না।’

গণমাধ্যম কর্মীরা বিষয়টি জানতে পেরে ওই ডিবি পুলিশের টিমে থাকা উপ-পরিদর্শক (এসআই) আলমগীরের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে ‘ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে’ বলে ঘটনাস্থল থেকে তাড়াতাড়ি চলে যান।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, স্বাধীন নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে ধরতে যান ডিবির ওই দলটি। কোনো রকম পরিচয় নিশ্চিত না হয়েই তারা ওই সেনা সদস্যের বাড়িতে ঢুকে পড়েন।

শাহজাহান নামে স্থানীয় এক প্রত্যদর্শী জানান, ডিবি পুলিশের সদস্যরা যে আচরণ করছেন তা ভাষায় বর্ণনা করার মতো না। একজন সাধারণ মানুষকে কোনো অপরাধ ছাড়া এভাবে হেনস্থা করা নজিরবিহীন।

এবিষয়ে গাজীপুর ডিবি পুলিশের পরিদর্শক আমির হোসেনকে অবগত করলে তিনি দায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বস্থ করেন।

দিনের বেলায় কারো বাড়িতে এভাবে পরিচয় না জানিয়ে ঢুকে লাঞ্ছিত করা পুলিশের এখতিয়ারের মাঝে পড়ে কিনা-জানতে চাইলে গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাসেল শেখ বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে বলেন ‘বিষয়টি অপরাধ হয়েছে। আমরা খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।’