সরকারি গাছ লুটের খবর ধামাচাপা দিতে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মাছ চুরির মামলা!

গাজীপুর প্রতিনিধি: সরকারি গাছ লুটের নিউজ করায় আলোকিত নিউজের নিজস্ব প্রতিবেদক সাইফুল ইসলাম ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে মাছ চুরির মামলা দিয়ে হয়রানির চেষ্টা করছে দুর্বৃত্তরা। সরকারি বনের গাছ লুট মামলার আসামি জহিরুল ইসলাম জয়দেবপুর থানায় কাল্পনিক অভিযোগ দিয়ে এই অপতৎপরতা চালাচ্ছেন।

১৫ জানুয়ারি আলোকিত নিউজ ডটকমে ‘গাজীপুরে বনের ভেতর আস্তানা গড়ে গাছ লুট’ শিরোনামে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পর জহির দলবল নিয়ে উঠেপড়ে লাগেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ওই জহির মহানগরীর গজারিয়া পাড়া এলাকায় মানিকদীঘি নামে পরিচিত বনের পুকুর ২০১৫ সালে এক বছরের জন্য লিজ নেন। এরপর লিজ নবায়ন না করেই দখল অব্যাহত রেখেছেন। এরই মধ্যে আকাশমনি ও গজারি গাছ কেটে বন উজাড় শুরু হয়।২৩ ও ২৪ ডিসেম্বর বাউপাড়া বিট অফিস অভিযান চালিয়ে গাছ ও কাঠ উদ্ধার করে। পরে জহির, তার সহযোগী নাহিদ ও কর্মচারী মনিরের বিরুদ্ধে মামলা করেন বিট কর্মকর্তা।

ঘটনাটি তুলে ধরায় আসামিরা সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম ও আলোকিত নিউজের সম্পাদকের ওপর প্রচণ্ড ক্ষিপ্ত হন। শুরু হয় হুমকি ধমকি।এদিকে সাইফুল ইসলাম ও তার বাবা দুলাল মিয়াসহ পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে থানায় ছয় লাখ টাকার মাছ চুরির অভিযোগ দেন জহির। পরে এসআই আনোয়ার হোসেন মঙ্গলবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

সাইফুল ইসলাম জানান, তদন্তকারী কর্মকর্তা এলাকাবাসীর সাথে কোন কথা বলেননি।পরিকল্পিতভাবে তাদেরকে হয়রানির উদ্দেশে ওই অভিযোগ করা হয়েছে।জানতে চাইলে এসআই আনোয়ার বলেন, এজাহার দিয়েছে, মামলা হবে। অভিযোগ মিথ্যা হলে আদালত দেখবে।

এ ব্যাপারে জয়দেবপুর থানার ওসি আমিনুল ইসলামের সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

মিথ্যা অভিযোগে সাংবাদিক পরিবারকে হয়রানির তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন – বনপা’র কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট মোঃ সাইফুল ইসলাম মোল্লা সহ জাতীয় ও আঞ্চলিক সাংবাদিক নেতারা। তারা বলেন, বিনা দোষে সাংবাদিককে বা তার পরিবার পরিজনকে হয়রানি করলে সাংবাদিক সমাজ বসে থাকবে না।অবিলম্বে মিথ্যা অভিযোগ প্রত্যাহারের দাবী জানান তারা।