১৯৭১ সাল পাকিস্তানের ইতিহাসে নেই!

লেখক বেগম আনাম জাকারিয়া

স্টাফ রিপোর্টার : ‘পাকিস্তানের উচিত বাঙালির কণ্ঠস্বর শোনা ও স্বীকৃতি দেওয়া’-এমনটিই মনে করেন পাকিস্তানের নতুন প্রজন্মের গবেষক, লেখক বেগম আনাম জাকারিয়া। তার মতে, নতুন প্রজন্ম যাতে সত্য ঘটনা না জানতে পারে সেজন্য পাকিস্তানে যেকোনো অভ্যুত্থান-পরাজয়কে ভারতীয় হিন্দুদের ষড়যন্ত্র হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

‘১৯৭১ সাল আমাদের ইতিহাসে নেই’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ১৯৪৭ সালকে বিচার করা হয় জয় হিসেবে আর ১৯৭১ সালকে ভারত ও হিন্দুদের ষড়যন্ত্র হিসেবে। শুক্রবার বিকেলে খুলনায় অনুষ্ঠিত ‘১৯৭১ সালে বাংলাদেশে গণহত্যা’ শীর্ষ এক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

‘১৯৭১ : গণহত্যা নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর’-এর সহযোগী প্রতিষ্ঠান ‘গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা’ কেন্দ্র এই সেমিনারের আয়োজন করে। সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন ১৯৭১ : গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর ট্রাস্টের সভাপতি বিশিষ্ট ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ড. মুনতাসীর মামুন। সেমিনারে বক্তব্য রাখেন পাকিস্তানের নতুন প্রজন্মের আরেক গবেষক হারুন খালিদ।

সূচনা বক্তব্য রাখবেন ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি ও ১৯৭১ : গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর ট্রাস্টের ট্রাস্টি শাহরিয়ার কবির। স্বাগত বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ড. মো. মাহবুবর রহমান এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ১৯৭১ : গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর ট্রাস্টের ট্রাস্টি সম্পাদক ডা. শেখ বাহারুল আলম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন অধ্যাপক শঙ্কর কুমার মল্লিক।

সেমিনারে শাহরিয়ার কবির বলেন, এ বছর ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবসে আনাম জাকারিয়া পাকিস্তানের একমাত্র লেখক, যিনি পত্রিকায় লিখে জানতে চান, বাংলাদেশে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালন করেছে জাতীয়ভাবে। এখন পাকিস্তানিরা কী করবে? শাহরিয়ার কবির বলেন, পাকিস্তানিরা সবসময় এই ইতিহাস অস্বীকার করেছে। এখন নতুন প্রজন্ম কৌতূহলী হচ্ছে। তাদের জানা উচিত কেন আমরা চাই পাকিস্তান গণহত্যা স্বীকার করুক।

যারা গণহত্যা করেছে, যেখানেই করুক তার শাস্তি হওয়া উচিত। সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. মুনতাসীর মামুন বলেন, পাকিস্তানিরা হিস্ট্রি কি জানে না। সে দেশে সামরিক আধিপত্য, সিভিল সমাজ, জঙ্গি-মৌলবাদ সব কিছুই আছে। ১৯৭১ তাদের ইতিহাসে নেই। আমরা চাই নতুন প্রজন্মের পাকিস্তানিরা জানুক তাদের পূর্বসূরিরা কী ছিল। তারা এর জন্য এখনও অনুতপ্ত তো নয়ই, বরং যুদ্ধাপরাধ বিচারের বিরোধিতা করছে। আমরা চাই নতুন প্রজন্ম পাকিস্তানের এই ধারণা বদলাক। নয়তো বিশ্ব পরিবারে তারা অপাঙেক্তয় হয়ে পড়বে।

ড. মামুন আরও বলেন, আমরা চাই গণহত্যার সঙ্গে যারা জড়িত এবং পাকিস্তানে বসবাস করছেন তাদের বিচারের দাবিও উত্থাপিত হোক। পাকিস্তানের গবেষক হারুন খালিদ বলেন, ১৯৭১ সালের ভূমিকা নিয়ে পাকিস্তান সরকার ও পাকিস্তানের এলিট গোষ্ঠী মনোভাবের সঙ্গে অনেকে ভিন্নমত পোষণ করেন। আমাদের মতো নতুন প্রজন্মের মানুষেরা এ বিষয় নিয়ে অনুসন্ধান ও প্রকৃত বিষয় জানার চেষ্টা করছে। গবেষণা ও লেখালেখি করছে। এর অংশ হিসেবে এই অনুষ্ঠানে আসা।