আজ সোমবার | ১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ || ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ || সময় ০৫:০৩ পূর্বাহ্ন
photo

গাজীপুর সিটি নির্বাচন নিয়ে দুর্ভাবনায় নেই আওয়ামী লীগ

     সোমবার, ২৮ মে, ২০১৮

Photo
গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন

স্টাফ রিপোর্টার: ঢাকার পার্শ্ববর্তী গুরুত্বপূর্ণ জেলা গাজীপুরকে শিল্পাঞ্চল ও ব্যবসায়ীদের অভয়ারণ্য বলা হয়। নানা কারণে গাজীপুরে বরাবরই রাজনৈতিক অবস্থান পাকাপোক্ত রাখতে চায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি।

তবে এ জেলাকে দ্বিতীয় গোপালগঞ্জ হিসেবেও মনে করে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। এ কারণে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ আওয়ামী লীগের জন্য। তাই গাজীপুর সিটিতে নৌকার প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করতে সব ধরনের রাজনৈতিক কৌশল প্রয়োগ করতে চায় আওয়ামী লীগ। দলটির নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের একাধিক শীর্ষ নেতা তাদের কৌশলের কথা জানিয়েছেন।

নির্বাচনী কৌশলগুলোর মধ্যে রয়েছে—গাজীপুরে দলীয় কোন্দল ও উপ-কোন্দল মীমাংসা করা, ভোটারদের কাছে সরকারের উন্নয়নের বার্তা পৌঁছে দেওয়া। এছাড়া, সরকারদলীয় প্রার্থী জিতলে এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন হবে, স্থানীয় জনগণের কাছে এই বার্তা পৌঁছে দেওয়া। এসব কৌশল অবলম্বন করে দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা এই নির্বাচনে মাঠে সরব রয়েছেন।

আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের একাধিক নেতার ভাষ্য— গাজীপুর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিজয় প্রায় সুনিশ্চিত হয়ে আছে বলা যায়। এই নির্বাচনে দলীয় পলিসি, প্রচারণা এবং সেখানকার নির্বাচনী পুরো পরিবেশই নৌকার প্রার্থীর অনুকূলে রয়েছে। তাই দলের নীতিনির্ধারকরা মনে করেন, খুলনার চেয়েও সহজভাবে গাজীপুরে জিতবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক  বিজ্ঞাপন চ্যানেলকে বলেন, ‘গাজীপুর নির্বাচন নিয়ে আওয়ামী লীগে কোনো দুর্ভাবনা নেই। সেখানে দলের শক্ত ভিত্তি তৈরি হয়েই আছে। এছাড়া, স্থানীয় রাজনীতিতে আমাদের যেসব সমস্যা ছিল, তাও ইতোমধ্যে সমাধান হয়ে গেছে। ফলে নৌকার প্রার্থীর বিজয় নিয়ে সমস্যা দেখছি না।’

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ২৬ জুন। সেখানে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম। অন্যদিকে, আওয়ামী লীগের প্রধান প্রতিপক্ষ হচ্ছে বিএনপি’র হাসান উদ্দিন সরকার

 




photo
বিশেষ বিজ্ঞাপন