আজ সোমবার | ১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ || ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ || সময় ০৫:০২ পূর্বাহ্ন
photo

বঙ্গবন্ধু কন্যা অংশগ্রহনমূলক নির্বাচনের দ্বার উন্মোচন করেছেন - ডা.শহীদুল্লাহ সিকদার

     শুক্রবার, ০২ নভেম্বর, ২০১৮

Photo
কাপাসিয়ায় গণসংযোগ করছেন অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার

স্টাফ রিপোর্টার: শুক্রবার গণতন্ত্রী পার্টির প্রেসিডিয়ামের অন্যতম সদস্য চৌদ্দ দলীয় জোটের নেতা অধ্যাপক ডা.মো. শহীদুল্লাহ সিকদার তার নির্বাচনি এলাকা গাজীপুরÑ (কাপাসিয়া) আসনে দিনব্যাপী বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা প্রদান গণসংযোগ করেছেন।

এসময় তার সাথে ছিলেন গণতন্ত্রী পার্টি কাপাসিয়া উপজেলা শাখার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এম. গনি, সাধারণ সম্পাদক আবদুল আলীম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ আউয়াল, বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আঃ গনি, উৎপল বনিক, মো. সুজন, মাহফুজ আহম্মেদ,রায়হান প্রমুখ।

তিনি কাপাসিয়ার বলখেলার বাজার, চাঁদপুর বাজার, ঘাটকুড়ি বাজার, কামড়া মাশক, ফুলবাড়িয়া, ইউনুছ মার্কেট, বেগুনহাটি, রানীগঞ্জ বাজার, চাটারবাগ, রাওনাট বাজার এলাকায় গনসংযোগ,  লিফলেট বিতরন পথসভায় বক্তব্য রাখেন।

তিনি বলেন, আগামী নির্বাচন হবে মুক্তিযুদ্ধের ধারায় অগ্রসরমান বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় পরিনত করার নির্বাচন। ইতোমধ্যে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে উন্নয়ন সমৃদ্ধির পথে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে তার জন্য প্রয়োজন মুক্তিযুদ্ধের ধারায় বিশ্বাসী সকল দল জোটের ঐক্যবদ্ধভাবে জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহন ৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধু গোটা দেশের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করার যে আহ্বান জানিয়ে ছিলেন আজকের গনতন্ত্রী পার্টি অর্থাৎ সেই সময়ের ন্যাপ সেই আহ্বানে সারা দিয়ে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করে। মুক্তিযুদ্ধের পরিক্ষিত শক্তি হিসেবে ত্যাগী নেতাকর্মী সমৃদ্ধ সংগঠন হিসেবে গণতন্ত্রী পার্টির সকল নেতা কর্মী আগামী নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্বে অংগ্রহনের মাধ্যমে নির্বাচনকে একটি অর্থবহ অবাধ সুষ্ট নির্বাচন হিসেবে দেখতে চায়। সুতরাং যে সংলাপ গতকাল বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শুরু হয়েছে তা চলমান থাকবে বলে আমি বিশ্বাস করি এবং কথাটি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করতে চাই।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে  যে সংলাপ গণভবনে অনুষ্ঠিত হয়েছে তা আগামী দিনে মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্নের বাংলাদেশ তৈরি করার ক্ষেত্রে অর্থবহ ইতিবাচক ভূমিকা পালন করবে। গণতন্ত্রী পার্টির নেতা কর্মীরা মহান মুক্তিযুদ্ধে অবদান রেখেছে। গণতন্ত্রী পার্টির নেতাকর্মীরা তৎকালিন ন্যাপ, ছাত্র ইউনিয়ন, কমিউনিস্ট পার্টির গেরিলা বাহিনির সদস্য হিসেবে মহান মুক্তিযুদ্ধে অবদান রেখেছে। আগামী দিনেও বঙ্গবন্ধুর কন্যার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশ নির্মানের ক্ষেত্রে গণতন্ত্রী পার্টির নেতা কর্মীরা গুরুত্বপুর্ন ভূমিকা পালন করবে। কাপাসিয়ার মানুষ আগামী দিনে অবশ্যই সৎ,যোগ্য এবং ত্যাগী নেতৃত্বকে জনপ্রতিনিধি হিসেবে দেখতে চায় এবং সেই ক্ষেত্রে গণতন্ত্রী পার্টি অবশ্যই কাপাসিয়ার মানুষের সেই আকাঙ্ক্ষা পূরন করতে পারবে বলে আমি বিশ্বাস রাখি।




photo
বিশেষ বিজ্ঞাপন