আজ সোমবার | ১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ || ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ || সময় ০৫:০১ পূর্বাহ্ন
photo

খালেদাকে জোর করে হাসপাতালে আনা হয়: রিজভী

     শনিবার, ০৭ এপ্রিল, ২০১৮

Photo
রুহুল কবির রিজভী। ফাইল ছবি

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেছেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সম্পূর্ণ অপ্রস্তুতভাবে আজ জোর করে গাড়িতে উঠিয়ে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তাঁর অভিযোগ, চিকিৎসার নামে সরকার খালেদা জিয়াকে মানুষিক ও শারীরিকভাবে কষ্ট দেওয়ার জন্য নাটক করেছে।

আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী এই অভিযোগ করেন।

আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে খালেদা জিয়াকে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরোনো কারাগার থেকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে এক্স-রে করার জন্য আনা হয়। দুপুর দেড়টার দিয়ে চিকিৎসা শেষে ফের কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘খালেদা জিয়া ভাল নেই। আমরা শুনেছি কারাগারে তার কক্ষে গিয়ে সাত আটজন বারবার তাকে তাগিদ দিয়েছেন। চিকিৎসার নামে খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে নেওয়া প্রহসনের নামান্তর। কোন চিকিৎসাই তাঁকে দেওয়া হয়নি। ব্যক্তিগত চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার সুযোগও দেওয়া হয়নি।’

সাবেক এই ছাত্রনেতা বলেন, তিনবারের প্রধানমন্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে এসে টানা হেঁচড়া করা হয়েছে শুধুমাত্র হেনস্থা ও হয়রানী করার জন্য। দেশনেত্রীর গাড়ি হাসপাতালে এসে পৌঁছলে তাঁকে একরকম টানা হেঁচড়া করে ওপরে উঠানো হয়। গাড়ি থেকে নামার জন্য সিড়ি পর্যন্ত দেওয়া হয়নি। আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর অতিরিক্ত বাড়াবাড়িতে হাসপাতালে ধাক্কা ধাক্কির মতো পরিস্থিতিতে একরকম অপমানজনকভাবে তাঁকে হাসপাতালে ওঠানো-নামানো হয়েছে।

রিজভী বলেন, ‘একজন মানুষ হিসেবে বেগম জিয়ার যে চিকিৎসা পাওয়ার অধিকার সেটাকেও হরণ করতে ক্ষমতাতপস্বী সরকারপ্রধান বিষদাঁত লুকাতে পারছেন না। নিজেকে সাধু দেখানোর জন্য সরকার বেগম জিয়ার চিকিৎসার নামে নাটক করেছে।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য হাবিবুর রহমান, আবদুস সালাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।




photo
বিশেষ বিজ্ঞাপন